Home বাংলাদেশ ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁর চার্জশিট যশোর আদালতে

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁর চার্জশিট যশোর আদালতে

154
0

নিজস্ব সংবাদদাতা: ভারতের পশ্চিমবঙ্গের বনগাঁর ‘শ্যামাপ্রসাদ লজ’-এ নিহত যশোরের আসমা হত্যা মামলার চার্জশিট দিয়েছে ডিবি পুলিশ।
অভিযুক্ত আবুল কাশেম ওরফে কাশেম মিয়া যশোর শহরের পালবাড়ি গাজীরঘাট রোড এলাকার মৃত বশির মিয়ার ছেলে।
মামলার তদন্ত কর্মকর্তা যশোর ডিবি পুলিশের ওসি সোমেন দাশ মামলা তদন্ত শেষে এ চার্জশিট জমা দেন। চার্জশিটে অভিযুক্ত আসামিকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।
নিহত আসমা যশোর শহরের আরবপুর পাওয়ার হাউজপাড়া এলাকার শাহানুর ইসলামের স্ত্রী ছিলেন। হত্যায় অভিযুক্তের সঙ্গে তার পরকীয়া ছিল।
মামলা তদন্তকারীদের সূত্রে জানা যায়, আসমার স্বামী শাহানুরের সঙ্গে আসামি কাশেমের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক ছিল। সেই সুবাদে নিয়মিত তিনি শাহানুরের বাড়িতে যাতায়াত করতেন। একপর্যায় আসমার সঙ্গে কাশেমের পরকীয়া সম্পর্ক গড়ে ওঠে। বিষয়টি জানাজানি হলে শাহানুর আসমাকে তালাক দেন। পরে আসমা তার শিশুকন্যাকে নিয়ে পাশের নওদাগ্রামের মঞ্জু নামে এক শিক্ষকের বাড়িতে ভাড়া থাকতে শুরু করেন। শাহানুরের সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন হওয়ার পর কাশেমের সঙ্গে সম্পর্ক আরো ঘনিষ্ঠ হয়ে ওঠে তার। প্রায়ই তারা ভারতে গিয়ে একসঙ্গে থাকতেন।
এরই ধারাবাহিকতায় গত ১৫ জানুয়ারি আসমা ও তার খালা মনোয়ারা বেগম চিকিৎসার জন্যে ভারতে যান। সঙ্গে কাশেমও ছিলেন। তারা উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বনগাঁ শহরের বাটা মোড়ে ‘হোটেল শ্যামাপ্রসাদ’-এ ওঠেন। ওই হোটেলের একটি কক্ষে আসমা ও কাশেম, অপর কক্ষে তার খালা মনোয়ারা বেগম ছিলেন। ১৬ তারিখ সকালে রুম পরিষ্কার করতে গিয়ে হোটেল কর্মচারী আসমাকে মৃত অবস্থায় পান। পরে আর আবুল কাশেমকে খুঁজে পাওয়া যায়নি।
এদিকে, এ ঘটনায় নিহতের ভাই আজিম উদ্দিন বাদী হয়ে গত ৩০ জানুয়ারি যশোর আদালতে মামলা করেন। পরে মামলাটি কোতয়ালী থানায় এজাহার হিসেবে গ্রহণ করা হয়। তদন্তের দায়িত্ব পায় ডিবি পুলিশ। তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় গত ৩০ মে ঢাকার মিরপুর থেকে কাশেমকে গ্রেফতার করে যশোর ডিবি পুলিশ। পরের দিন আদালতে সোপর্দ করা হলে তিনি খুনের কথা স্বীকার করে আদালতে জবানবন্দি দেন।
যশোর ডিবি পুলিশের ইনসপেক্টর সোমেন দাশ তদন্ত শেষে আবুল কাশেমকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।
তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে চার্জশিট দাখিলের তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here