Home বাংলাদেশ সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচন হচ্ছে : সিইসি

সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচন হচ্ছে : সিইসি

27
0

যশোর-৬ কেশবপুর আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভা                                                       জাতীয় সংসদের-৯০ যশোর-৬ শূন্য আসনের উপনির্বাচন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভা শনিবার সকালে কেশবপুর আবু শারাফ সাদেক অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রধান অতিথি প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা বলেন, আগামী ১৪ জুলাই যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপনির্বাচন হচ্ছে সংবিধান রক্ষার নির্বাচন। কোনো ব্যক্তি বা দলকে সুবিধা দিতে নয়, সাংবিধানিক কারণেই করোনার মধ্যে উপনির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। নির্বাচন কমিশনের নির্বাচন পেছানোর আইনগত কোনো সুযোগ নেই। তবে মহামান্য রাষ্ট্রপতি বিষয়টি সুপ্রিম কোর্টে নিতে পারেন। আমরা মহামান্য রাষ্ট্রপতির স্মরণাপন্ন হয়েছিলাম। তিনিও বলেছেন, নির্বাচন না করার কোনো সুযোগ নেই। তাই করোনা পরিস্থিতির মধ্যে স্বাস্থ্যবিধি মেনেই অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ভোটকেন্দ্রে মুখে মাস্ক পরতে হবে এবং হাতে স্যানেটাইজার ব্যবহারের ব্যবস্থা রাখা হবে। সাবান দিয়েও হাত ধোয়ার ব্যবস্থা থাকবে।                                                                                                                                                            যশোর জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খানের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাৎ হোসেন চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন যশোর-৬ কেশবপুর সংসদীয় আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকার প্রার্থী ও যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার ও জাতীয় পার্টি মনোনীত লাঙ্গল প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব।
অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব অশোক কুমার দেবনাথ, যুগ্মসচিব ফরহাদ আহম্মেদ খান, খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ড. মু. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, পুলিশের খুলনা রেঞ্জের উপ-মহাপুলিশ পরিদর্শক আবু হেনা খন্দকার অহিদুল করিম, যশোরের পুলিশ সুপার মুহাম্মদ আশরাফ হোসেন, যশোরের সিনিয়র জেলা নির্বাচন অফিসার ও রিটার্নিং অফিসার হুমায়ুন কবির, কেশবপুর উপজেলা চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব কাজী রফিকুল ইসলাম, পৌর মেয়র রফিকুল ইসলাম, কেশবপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার নুসরাত জাহান, কেশবপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইরুফা সুলতানা, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক গাজী গোলাম মোস্তফা, কেশবপুর থানার অফিসার ইনচার্জ জসিম উদ্দীন, উপজেলা নির্বাচন অফিসার বজলুর রশিদ, স্থানীয় সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ, বিজিবি ও র‌্যাবের প্রতিনিধি। এর আগে প্রধান নির্বাচন কমিশনার সকাল সাড়ে ১০টায় হেলিকপ্টারযোগে কেশবপুরে আসেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here